আয়ের শীর্ষে রোনালদো

রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে আল নাসরে যোগ দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তাতে আরও ফুলে-ফেঁপে উঠেছে পর্তুগিজ যুবরাজের আয়। এর প্রমাণ পাওয়া গেল ফোর্বসের তালিকায়।

আয়ের দিক থেকে বিশ্বের সেরা ১০ অ্যাথলেটের নাম প্রকাশ করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সাময়িকীতে। সেখানে সবার ওপরে অবস্থান করছেন ইউরোপ ছেড়ে সৌদি ফুটবলে নাম লেখানো রোনালদো।

রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাস, সেখান থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ড ট্রাফোর্ডের হর্তাকর্তাদের নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্যের পর রোনালদোর সঙ্গে সম্পর্কের ইতি টানে রেড ডেভিলসরা। এরপর গত বছরের ডিসেম্বরে নাসর হয় সিআর-সেভেনের নতুন ঠিকানা। সৌদি প্রো লিগের ক্লাবটির সঙ্গে আড়াই বছরের চুক্তি করেছেন ৩৮ বছর বয়সি ফরোয়ার্ড।

বিগত ১২ মাসে মাঠে ও মাঠের বাইরে অ্যাথলেটদের আয় বিবেচনা করে তৈরি করা হয়েছে তালিকা। ফোর্বসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত এক বছরে রোনালদো আয় করেছেন ১৩৬ মিলিয়ন ডলার এবং সৌদি ক্লাবে তার বার্ষিক বেতন প্রায় ৭৫ মিলিয়নে পৌঁছেছে। পর্তুগিজ যুবরাজের পরেই লিওলেন মেসি। কাতারে বিশ^জয়ী আর্জেন্টাইন খুদে রাজের আয়ের অঙ্ক ১৩০ মিলিয়ন।

শীর্ষ ১০ জনের মধ্যে সর্বকনিষ্ট অ্যাথলেট কিলিয়ান এমবাপে। ১২০ মিলিয়ন আয় নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছেন ২৪ বছর বয়সি ফরাসি ফরোয়ার্ড। সেরা পাঁচে থাকা অন্য দুজন ভিন্ন দুই অঙ্গনের। একজন এনবিএ গ্রেট লেব্রন জেমস ১১৯.৫ মিলিয়ন, অন্যজন মেক্সিকান বক্সার কানেলো আলভারেজ ১১০ মিলিয়ন। তালিকায় শেষ পাঁচজনের মধ্যে চারজনই আমেরিকান।

দুই আমেরিকান গলফার ডাস্টিন জনসন ১০৭ মিলিয়ন এবং ফিল মাইকেলসন ১০৬ মিলিয়ন নিয়ে রয়েছেন যথাক্রমে ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থানে। অষ্টম ও দশম স্থানে দুই আমেরিকান বাস্কেটবল খেলোয়াড়-স্টিফেন কারির আয় ১০০.৪ মিলিয়ন এবং কেভিন ডুরান্টের আয় ৮৯.১ মিলিয়ন। সাবেক টেনিস কিংবদন্তি রজার ফেদেরার ৯৫.১ মিলিয়ন আয়ে নবম স্থানে ঠাঁই পেয়েছেন।