রুয়েট ভিসির পদত্যাগ

শিক্ষকদের পদোন্নতি দিতে না পেরে পদত্যাগ করেছেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) রুটিন দায়িত্বের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন।

রোববার (২৮ মে) রাত ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। শিক্ষকদের কাছে দিনভর অবরুদ্ধ থাকার পর রাতে তিনি পদত্যাগ করেন।

এর আগে রোববার বেলা ১১টার দিকে রুয়েটের অর্ধশতাধিক শিক্ষক তাদের পদোন্নতির দাবিতে ভিসি অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেনকে অবরুদ্ধ করেন। ভিসির কার্যালয়ে এই শিক্ষকরা মেঝেতে বসে ছিলেন দীর্ঘ সময়। কিন্তু রুটিন দায়িত্বের ভিসি হিসেবে পদোন্নতি দিতে না পারার কারণ বোঝাতে ব্যর্থ হলে রাতে তিনি পদত্যাগ করেন। পদত্যাগের পরই দপ্তর ছেড়ে চলে যান ড. সাজ্জাদ হোসেন। এরপর আন্দোলনরত শিক্ষকেরাও বাড়ি ফিরে যান।

পদত্যাগের বিষয়টি রাতে নিজেই নিশ্চিত করেছেন অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘আমি রুটিন দায়িত্বে রুয়েটের ভিসি নিযুক্ত হয়েছিলাম। আমরা পদোন্নতি দেওয়ার ক্ষমতা ছিল না। কিন্তু যারা আন্দোলন করছিলেন, তারা এটা বুঝতে চাননি। তারা মনে করছিলেন যে, আমি থাকার কারণে নিয়মিত ভিসিও নিয়োগ হচ্ছে না। তাই আমি পদত্যাগ করি, এটা তারা চাচ্ছিলেন। এ কারণে আমি আমার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি।’

তিনি জানান, পদত্যাগপত্রটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিমকে দেওয়া হয়েছে। তিনি এখন এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেবেন।

গত বছরের ৩০ জুলাই আগের ভিসির মেয়াদ শেষ হলে রুয়েটের সর্বোচ্চ প্রশাসনিক এই পদ শূন্য হয়ে যায়। এরপর ১০ মাস থেকে রুটিন দায়িত্বের অতিরিক্ত ভিসির দায়িত্ব পালন করছিলেন অ্যাপ্লাইড সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন। নিয়মিত ভিসি না থাকার কারণে রুয়েটের সব কাজকর্মেই স্থবিরতা নেমে এসেছিল। এরমধ্যেই পদোন্নতির দাবিতে শিক্ষকেরা দিনভর ভিসিকে অবরুদ্ধ করলে তিনি পদত্যাগ করলেন।