চট্টগ্রামের ৩ উপজেলায় বিজয়ী যারা

শেষ হয়েছে প্রথম ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ভোট গণনা শেষে ফলাফল আসতে শুরু করেছে। সন্ধ্যা থেকে ফলাফল আসা শুরু হয়। এরআগে বুধবার (৮ মে) সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। প্রথম ধাপে চট্টগ্রামের ৩ উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সীতাকুণ্ড
৬ষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান পরিষদের প্রথম দফার নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন আনারস প্রতীকের আরিফুল আলম চৌধুরী রাজু। তিনি পেয়েছেন ৫৯ হাজার ৭৯৫ ভোট। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দোয়াত কলম প্রতীকের মহিউদ্দিন আহমেদ মঞ্জু পেয়েছেন মাত্র ১১ হাজার ১৮৬ ভোট।

এছাড়া অন্য দুই পদের মধ্যে পুরুষ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন উড়োজাহাজ প্রতীকের কাজী গোলাম মহিউদ্দিন।

তিনি পেয়েছেন ৬৮ হাজার ২০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টিউবওয়েল প্রতীকের জালাল আহমেদ পেয়েছেন ১১ হাজার ২৩০ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পদ্মফুল প্রতীকে শাহিনুর আক্তার বিউটি ৫৪ হাজার ৭৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাঁস প্রতীকের শামীমা আক্তার পেয়েছেন ৮ হাজার ৮০৯ ভোট। আর ফুটবল প্রতীকের হামিদা আক্তার পেয়েছেন ৫ হাজার ৬০৭ ভোট।

বুধবার (৮ মে) ভোট গণনা পরবর্তী বেসরকারিভাবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম রফিকুল ইসলাম।

এর আগে বুধবার সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে টানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলায় মোট ভোটার ছিলেন ৩ লাখ ২৪ হাজার ২৪০ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭২ হাজার ৩৩ জন এবং এক লাখ ৫২ হাজার ২০৬ জন মহিলা ভোটার। মোট ৯২টি ভোটকেন্দ্রে বুথ ছিল ৮০০টি।

মিরসরাই
মিরসরাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বেসরকারী ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এতে কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৩৩ হাজার ৭০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত হোসেন নয়ন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ আতাউর রহমান ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পেয়েছেন ২০ হাজার ৭শত ৬৭ ভোট।

এছাড়াও এ নির্বাচনে চশমা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করে ৩৮ হাজার ৩শত ৪৬ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সাইফুল ইসলাম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ সেলিম টিয়াপাখি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৭ শত ৩৭ ভোট। এছাড়াও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৩১ হাজার ২ শত ৩৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন উম্মে কুলসুম কলি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইসমত আরা ফেন্সি কলস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২০ হাজার ৫শত ৭৭ ভোট।

বুধবার (৮ মে) মিরসরাই উপজেলা অডিটোরিয়ামে এ ফলাফল প্রকাশের পর বিজয়ীদের হাতে ফলাফল শিট তুলে দেন উপজেলা নির্বাচন সমন্বয়কারী ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাহফুজা জেরিন।

মিরসরাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বাকি প্রার্থীদের মধ্যে ফেরদৌস হোসেন আরিফ আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৪ শত ৩৪ ভোট, মো. মোস্তফা মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬৬৫ ভোট, উত্তম কুমার শর্মা দোয়াতকলম প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৩শত ৪৬ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান পদে বাকি প্রার্থীদের মধ্যে সাইফুল আলম তালা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৭৫১ ভোট, সালাহ উদ্দিন আহম্মদ টিউবয়েল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৭শত ৩৮ ভোট। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতাকারী অপর প্রার্থী বিবি কুলসুমা চম্পা পদ্মফুল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৭ হাজার ৬ শত ৭৬ ভোট।

সন্দ্বীপ
সন্দ্বীপ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এস এম আনোয়ার হোসেন আনারস প্রতীকে ৪১ হাজার ৩৮৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাঈন উদ্দিন মিশন কাপ-পিরিচ প্রতীকে পেয়েছেন মাত্র ২ হাজার ৫৩১ ভোট।

বুধবার (৮ মে) সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা দেবাশীষ দাশ এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

এছাড়া এ পদে দোয়াত কলম প্রতীকে ফোরকান উদ্দিন আহমেদ পেয়েছেন ৪৩৪ ভোট, নাজিম উদ্দিন জামসেদ মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৮৭ ভোট ও শেখ মোহাম্মদ জুয়েল হেলিকপ্টার প্রতীকে পেয়েছেন ৩২৭ ভোট।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে হালিমা বেগম শান্তা ফুটবল প্রতীকে ৩৬ হাজার ৭৫৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নাহিদ তানমি লিজা পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৮৮।

সন্দ্বীপ উপজেলায় ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় মোট ভোটার ২ লাখ ৪৫ হাজার ৬৭৬ জন। এ উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্র ছিল ৮৫টি।এদিকে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ওমর ফারুক।